ঢাকা 11:08 am, Saturday, 4 February 2023

এম এম কিট বা অ্যাবো কিট এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াঃ

  • আপডেট সময় : 10:13:26 pm, Sunday, 21 August 2022 663 বার পড়া হয়েছে

 

এম এম কিট বা অ্যাবো কিট এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াঃ-আসসালামু আলাইকুম প্রিয় বন্ধুরা,আশা করি সকলে ভালো আছেন, ইনশা আল্লাহ আমিও আল্লাহর রহমতে অনেক ভালো আছি। আজ আমি আপনাদের এক অসাধারণ তথ্য দিবো। আমি সব সময় চেষ্টা করি সঠিক তথ্য এবং নির্ভুল তথ্য দেওয়ার জন্য। যা অনেক ইমারজেন্সি একটি সমস্যা।

প্রতিনির্দেশনাঃ

যে সকল রোগীদের জরায়ুর বাইরে নিষিক্ত ডিম্বানু স্থাপিত হয়, দীর্ঘদিন অন্য ওষুধ এর সাথে কর্টিস্টেরয়েড এর ব্যবহার, দীর্ঘদিন অ্যাড্রোনাল ফেইলিউর, মিফেপ্রিস্টোন, মিসোপ্রোস্টল, অন্যান্য প্রোস্টাগ্লান্ডিনেট প্রতি অতি সংবেদনশীলতা, রেনাল ফেইলিউর, অনিয়ন্ত্রিত রক্তক্ষরণ, যকৃতের সমস্যা, আই. ইউ. ডি স্থাপিত অবস্থায়, জরায়ুতে কোন অনির্ধারিত ম্যাস এর ক্ষেত্রে এই এম এম কিট বা অ্যাবো কিট প্রতিনির্দেশিত।

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াঃ

মিফেপ্রিস্টোনঃ মিফেপ্রিস্টোন ইউ এস পি ২০০ মিলি গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ১ টি ট্যাবলেট থাকে ) চিকিৎসায় কার্যপ্রণালীতে যোনীপথ এ রক্তক্ষরণ, এবং জরায়ুর পেশী সংকোচন দ্রুত বেড়ে যায়। গর্ভপাতের জন্য যোনীপথ এ রক্তক্ষরণ, এবং জরায়ুর পেশী সংকোচন দ্রুত বাড়া প্রয়োজন। বমি, বমি বমি ভাব, ডায়রিয়া, পেলভিক এ ব্যাথা, মাথ ঘোরা, মাথা ব্যাথা ইত্যাদি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয় বা হয়।

মিসোপ্রেস্টোলঃ মিসোপ্রেস্টোল ইউ এস পি ২০০ মাইক্রো গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ৪ টি ট্যাবলেট থাকে ) গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া যেমনঃ ডায়রিয়া, পেট ব্যাথা, বমি বমি ভাব, পেট ফুলে যাওয়া, মাথা অতিরিক্ত ব্যাথা, ক্ষুদা লাগা, পেলভিক এ ব্যাথা, ব্জরায়ুর সংকচনে ব্যাথা, যোনীপথ এ অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ ইত্যাদি।

সতর্কতাঃ

মিফেপ্রিস্টোন ইউ এস পি ২০০ মিলি গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ১ টি ট্যাবলেট থাকে ) ও মিসোপ্রেস্টোল ইউ এস পি ২০০ মাইক্রো গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ৪ টি ট্যাবলেট থাকে ) এর কম্বিনেশন শুধুমাত্র রোগীর কিছু নির্দিষ্ট অবস্থায় নির্দেশিত। এম এম কিট বা অ্যাবো কিট অন্য দের জন্য সঠিক চিকিৎসা না ও হতে পারে। আথবা সেই রোগী বিপদজনক ও হতে পারে যদি সে পূর্বে গর্ববতী হয়ে থাকে।

মিফেপ্রিস্টোন ইউ এস পি ২০০ মিলি গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ১ টি ট্যাবলেট থাকে ) ব্যবহারের পূর্বে ইন্ট্রাইউটেরিন যন্ত্র ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে হবে। গর্ভপাত এর চিকিৎসায় যদি মিফেপ্রিস্টোন ইউ এস পি ২০০ মিলি গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ১ টি ট্যাবলেট থাকে ) এবং মিসোপ্রেস্টোল ইউ এস পি ২০০ মাইক্রো গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ৪ টি ট্যাবলেট থাকে ) ব্যর্থ হয় তবে অস্ত্রোপাচারের দ্বারা চিকিৎসা করতে হবে। শেষ পরিদর্শন এ যাদের গর্ভাবস্থা বিদ্যামান তাদের ক্ষেত্রে ভ্রুণের অঙ্গবিকৃতি পরিলক্ষিত হতে পারে।

ওষুধের আন্তঃক্রিয়াঃ

যদিও মিফেপ্রিস্টোন ইউ এস পি ২০০ মিলি গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ১ টি ট্যাবলেট থাকে ) এর সাথে নির্দিষ্ট কোন ওষুধ বা খাবার এর আন্তঃক্রিয়ার কোন তথ্য নেই কিন্তু CYP 3A4 দ্বারা মেটা বলিজম হয় এমন ওষুধ যেমনঃ কিটোকোনাজল, ইন্ট্রাকোনাজল, ইরাইথ্রোমাইসিন এবং আঙ্গুরের জুস মিফেপ্রিস্টোন এর মেটাবলিজম ব্যহত ( মিফেপ্রিস্টোন এর সেরাম লেভেল বেড়ে যায় ) করতে পারে।

মিসোপ্রোস্টল রিমাটয়েট আর্থ্রাইটিসের লক্ষণ ও উপসর্গে ব্যবহারিত অ্যাসপিরিনের কার্যকরীতা ব্যহত করে না। ব্লাড লেভেল, অ্যান্টিপ্লাটিলেট ইফেক্ট, অ্যাসপিরিনের শোষণ এর উপর মিসোপ্রেস্টোল ইউ এস পি ২০০ মাইক্রো গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ৪ টি ট্যাবলেট থাকে ) এর কোন উল্লেখযোগ্য প্রভাব বা ক্ষতি নেই।

অতিরিক্ত মাত্রায় ব্যবহারঃ

যদি কোন রোগী মিফেপ্রিস্টোন ইউ এস পি ২০০ মিলি গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ১ টি ট্যাবলেট থাকে ) এবং মিসোপ্রেস্টোল ইউ এস পি ২০০ মাইক্রো গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ৪ টি ট্যাবলেট থাকে ) অতিরিক্ত মত্রায় ব্যবহার বা গ্রহন করে, তখন তার এড্রোনাল সমস্যার লক্ষণ গুলো পর্যবেক্ষণ করা দরকার।

যেহুতু মিসোপ্রেস্টোল ইউ এস পি ২০০ মাইক্রো গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ৪ টি ট্যাবলেট থাকে ) ফ্যাটি এসিডের মত মেটাবলিজম হয়, সেহুতু অত্যাধিক মাত্রার জন্য ডায়ালাইসিস উপযুক্ত চিকিৎসা হতে পারে না। অতিরিক্ত মাত্রায় ব্যবহার এর ক্ষেত্রে উপযুক্ত স্বাস্থ সহায়ক ও নিরাপদ চিকিৎসা গ্রহণ করা যেতে পারে।

সংরক্ষণ ঃ

ঘড়ের গড় তাপমাত্রা যাচাই করে ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস এর নিচে রাখা উচিৎ। আদ্রতা, আলো এবং শিশুদের নাগালের বাইরে রাখা প্রযোজন।

সংক্ষিপ্ত আকারেঃ

ধাপ ১ঃ

প্রথম ট্যাবলেট টি খাওয়ার পর, মিফেপ্রিস্টোন ইউ এস পি ২০০ মিলি গ্রাম বমি বমি ভাব, বমি, মাথা ঘোরা, দূর্বলতা, ডায়রিয়া ইত্যাদি হতে পারে।

ধাপ ২ঃ

মুখের ভিতর দুইপাসে গাল এবং মাড়ির মাঝখানে মিসোপ্রোস্টল ইউ এস পি ২০০ মাইক্রো গ্রাম খাওয়ার পর জ্বর বা শীত শীত অনুভূতি,মাথাব্যাথা,পেট ফুলা, ডায়রিয়া, অতিরিক্ত যোনীপথে রক্তক্ষরণ, পেলভিক এ ব্যাথা হতে পারে।

ধাপ ৩ঃ

তলপেটে ব্যথা হলে দিনে ৪ থেকে ৬ বার আইবুপ্রোফেন অথবা ন্যাপ্রোক্সেন ট্যাবলেট অভিজ্ঞতা সম্পুর্ন ডাক্তার এর পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা গ্রহণ করে খেতে পারেন।

ধাপ ৪ঃ

মিসোপ্রোস্টল ইউ এস পি ২০০ মাইক্রো গ্রাম খাওয়ার পর মাসিকের রাস্তায় ছোট ছোট রক্তের দলা যেতে পারে। রক্তপাত ৭ থেকে ১০ দিন পর্যন্ত চলতে পারে, এটা স্বাভাবিক। এবং এটি খাওয়ার পর স্বাভাবিক মাসিকের মতো রক্তপাত হতে হবে।

ধাপ ৫ঃ

মিসোপ্রোস্টল ইউ এস পি ২০০ মাইক্রো গ্রাম খাওয়ার পর টানা ৪ ঘন্টা বা একদিনের বেশী জ্বর থাকে। ঘন্টায় ২ বারের বেশী স্যানিটারী ন্যাপকিন বদলাবার প্রয়োজন হয়।

ট্যাগস :

এম এম কিট বা অ্যাবো কিট এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াঃ

আপডেট সময় : 10:13:26 pm, Sunday, 21 August 2022

 

এম এম কিট বা অ্যাবো কিট এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াঃ-আসসালামু আলাইকুম প্রিয় বন্ধুরা,আশা করি সকলে ভালো আছেন, ইনশা আল্লাহ আমিও আল্লাহর রহমতে অনেক ভালো আছি। আজ আমি আপনাদের এক অসাধারণ তথ্য দিবো। আমি সব সময় চেষ্টা করি সঠিক তথ্য এবং নির্ভুল তথ্য দেওয়ার জন্য। যা অনেক ইমারজেন্সি একটি সমস্যা।

প্রতিনির্দেশনাঃ

যে সকল রোগীদের জরায়ুর বাইরে নিষিক্ত ডিম্বানু স্থাপিত হয়, দীর্ঘদিন অন্য ওষুধ এর সাথে কর্টিস্টেরয়েড এর ব্যবহার, দীর্ঘদিন অ্যাড্রোনাল ফেইলিউর, মিফেপ্রিস্টোন, মিসোপ্রোস্টল, অন্যান্য প্রোস্টাগ্লান্ডিনেট প্রতি অতি সংবেদনশীলতা, রেনাল ফেইলিউর, অনিয়ন্ত্রিত রক্তক্ষরণ, যকৃতের সমস্যা, আই. ইউ. ডি স্থাপিত অবস্থায়, জরায়ুতে কোন অনির্ধারিত ম্যাস এর ক্ষেত্রে এই এম এম কিট বা অ্যাবো কিট প্রতিনির্দেশিত।

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াঃ

মিফেপ্রিস্টোনঃ মিফেপ্রিস্টোন ইউ এস পি ২০০ মিলি গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ১ টি ট্যাবলেট থাকে ) চিকিৎসায় কার্যপ্রণালীতে যোনীপথ এ রক্তক্ষরণ, এবং জরায়ুর পেশী সংকোচন দ্রুত বেড়ে যায়। গর্ভপাতের জন্য যোনীপথ এ রক্তক্ষরণ, এবং জরায়ুর পেশী সংকোচন দ্রুত বাড়া প্রয়োজন। বমি, বমি বমি ভাব, ডায়রিয়া, পেলভিক এ ব্যাথা, মাথ ঘোরা, মাথা ব্যাথা ইত্যাদি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয় বা হয়।

মিসোপ্রেস্টোলঃ মিসোপ্রেস্টোল ইউ এস পি ২০০ মাইক্রো গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ৪ টি ট্যাবলেট থাকে ) গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া যেমনঃ ডায়রিয়া, পেট ব্যাথা, বমি বমি ভাব, পেট ফুলে যাওয়া, মাথা অতিরিক্ত ব্যাথা, ক্ষুদা লাগা, পেলভিক এ ব্যাথা, ব্জরায়ুর সংকচনে ব্যাথা, যোনীপথ এ অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ ইত্যাদি।

সতর্কতাঃ

মিফেপ্রিস্টোন ইউ এস পি ২০০ মিলি গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ১ টি ট্যাবলেট থাকে ) ও মিসোপ্রেস্টোল ইউ এস পি ২০০ মাইক্রো গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ৪ টি ট্যাবলেট থাকে ) এর কম্বিনেশন শুধুমাত্র রোগীর কিছু নির্দিষ্ট অবস্থায় নির্দেশিত। এম এম কিট বা অ্যাবো কিট অন্য দের জন্য সঠিক চিকিৎসা না ও হতে পারে। আথবা সেই রোগী বিপদজনক ও হতে পারে যদি সে পূর্বে গর্ববতী হয়ে থাকে।

মিফেপ্রিস্টোন ইউ এস পি ২০০ মিলি গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ১ টি ট্যাবলেট থাকে ) ব্যবহারের পূর্বে ইন্ট্রাইউটেরিন যন্ত্র ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে হবে। গর্ভপাত এর চিকিৎসায় যদি মিফেপ্রিস্টোন ইউ এস পি ২০০ মিলি গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ১ টি ট্যাবলেট থাকে ) এবং মিসোপ্রেস্টোল ইউ এস পি ২০০ মাইক্রো গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ৪ টি ট্যাবলেট থাকে ) ব্যর্থ হয় তবে অস্ত্রোপাচারের দ্বারা চিকিৎসা করতে হবে। শেষ পরিদর্শন এ যাদের গর্ভাবস্থা বিদ্যামান তাদের ক্ষেত্রে ভ্রুণের অঙ্গবিকৃতি পরিলক্ষিত হতে পারে।

ওষুধের আন্তঃক্রিয়াঃ

যদিও মিফেপ্রিস্টোন ইউ এস পি ২০০ মিলি গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ১ টি ট্যাবলেট থাকে ) এর সাথে নির্দিষ্ট কোন ওষুধ বা খাবার এর আন্তঃক্রিয়ার কোন তথ্য নেই কিন্তু CYP 3A4 দ্বারা মেটা বলিজম হয় এমন ওষুধ যেমনঃ কিটোকোনাজল, ইন্ট্রাকোনাজল, ইরাইথ্রোমাইসিন এবং আঙ্গুরের জুস মিফেপ্রিস্টোন এর মেটাবলিজম ব্যহত ( মিফেপ্রিস্টোন এর সেরাম লেভেল বেড়ে যায় ) করতে পারে।

মিসোপ্রোস্টল রিমাটয়েট আর্থ্রাইটিসের লক্ষণ ও উপসর্গে ব্যবহারিত অ্যাসপিরিনের কার্যকরীতা ব্যহত করে না। ব্লাড লেভেল, অ্যান্টিপ্লাটিলেট ইফেক্ট, অ্যাসপিরিনের শোষণ এর উপর মিসোপ্রেস্টোল ইউ এস পি ২০০ মাইক্রো গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ৪ টি ট্যাবলেট থাকে ) এর কোন উল্লেখযোগ্য প্রভাব বা ক্ষতি নেই।

অতিরিক্ত মাত্রায় ব্যবহারঃ

যদি কোন রোগী মিফেপ্রিস্টোন ইউ এস পি ২০০ মিলি গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ১ টি ট্যাবলেট থাকে ) এবং মিসোপ্রেস্টোল ইউ এস পি ২০০ মাইক্রো গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ৪ টি ট্যাবলেট থাকে ) অতিরিক্ত মত্রায় ব্যবহার বা গ্রহন করে, তখন তার এড্রোনাল সমস্যার লক্ষণ গুলো পর্যবেক্ষণ করা দরকার।

যেহুতু মিসোপ্রেস্টোল ইউ এস পি ২০০ মাইক্রো গ্রাম ( যেই অ্যালু-অ্যালু ব্লিস্টার স্ট্রীপে ৪ টি ট্যাবলেট থাকে ) ফ্যাটি এসিডের মত মেটাবলিজম হয়, সেহুতু অত্যাধিক মাত্রার জন্য ডায়ালাইসিস উপযুক্ত চিকিৎসা হতে পারে না। অতিরিক্ত মাত্রায় ব্যবহার এর ক্ষেত্রে উপযুক্ত স্বাস্থ সহায়ক ও নিরাপদ চিকিৎসা গ্রহণ করা যেতে পারে।

সংরক্ষণ ঃ

ঘড়ের গড় তাপমাত্রা যাচাই করে ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস এর নিচে রাখা উচিৎ। আদ্রতা, আলো এবং শিশুদের নাগালের বাইরে রাখা প্রযোজন।

সংক্ষিপ্ত আকারেঃ

ধাপ ১ঃ

প্রথম ট্যাবলেট টি খাওয়ার পর, মিফেপ্রিস্টোন ইউ এস পি ২০০ মিলি গ্রাম বমি বমি ভাব, বমি, মাথা ঘোরা, দূর্বলতা, ডায়রিয়া ইত্যাদি হতে পারে।

ধাপ ২ঃ

মুখের ভিতর দুইপাসে গাল এবং মাড়ির মাঝখানে মিসোপ্রোস্টল ইউ এস পি ২০০ মাইক্রো গ্রাম খাওয়ার পর জ্বর বা শীত শীত অনুভূতি,মাথাব্যাথা,পেট ফুলা, ডায়রিয়া, অতিরিক্ত যোনীপথে রক্তক্ষরণ, পেলভিক এ ব্যাথা হতে পারে।

ধাপ ৩ঃ

তলপেটে ব্যথা হলে দিনে ৪ থেকে ৬ বার আইবুপ্রোফেন অথবা ন্যাপ্রোক্সেন ট্যাবলেট অভিজ্ঞতা সম্পুর্ন ডাক্তার এর পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা গ্রহণ করে খেতে পারেন।

ধাপ ৪ঃ

মিসোপ্রোস্টল ইউ এস পি ২০০ মাইক্রো গ্রাম খাওয়ার পর মাসিকের রাস্তায় ছোট ছোট রক্তের দলা যেতে পারে। রক্তপাত ৭ থেকে ১০ দিন পর্যন্ত চলতে পারে, এটা স্বাভাবিক। এবং এটি খাওয়ার পর স্বাভাবিক মাসিকের মতো রক্তপাত হতে হবে।

ধাপ ৫ঃ

মিসোপ্রোস্টল ইউ এস পি ২০০ মাইক্রো গ্রাম খাওয়ার পর টানা ৪ ঘন্টা বা একদিনের বেশী জ্বর থাকে। ঘন্টায় ২ বারের বেশী স্যানিটারী ন্যাপকিন বদলাবার প্রয়োজন হয়।