ঢাকা 6:58 pm, Saturday, 28 January 2023

প্রতিদিন ব্যায়াম এর উপকারীতা

  • আপডেট সময় : 10:43:41 am, Saturday, 9 April 2022 390 বার পড়া হয়েছে

আসসালামু আলাইকুম।

আশা করি সবাই ভালো আছেন। আমি আজকে আপনাদের কাছে একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে এসেছি। বিষয়টি হচ্ছে যে ব্যায়াম এর উপকারীতা।।। শুরু করা যাক…….

প্রতিদিন ব্যায়াম এর উপকারীতা”

প্রতিদিন ব্যায়াম এর উপকারীতা

১. ওজন নিয়ন্ত্রণ করে

সুস্থ থাকার আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হল শরীরের বাড়তি ওজন ঝরিয়ে ফেলা। কিন্তু বাড়তি ওজন কমাতে ব্যায়ামের কোন বিকল্প নেই। শারীরিক চর্চা করলে ক্যালোরি খরচ হয়। এভাবে আমরা যতই ব্যায়াম করবো ততই আমাদের ক্যালোরি খরচ হবে এবং যার ফলে শরীরের ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

২. ব্যায়াম মনকে ভালো রাখে

ব্যায়ামের মাধ্যমে নানা রকম রাসায়নিক পদার্থ মস্তিষ্ক হতে নির্গত হয়। এসব রাসায়নিক উপাদান চিত্ত প্রফুল্ল করে এবং শারীরিক ও মানসিক প্রশান্তির পাশাপাশি চেহারায় ঔজ্জ্বল্য বাড়ায়। যিনি নিয়মিত ব্যায়াম করেন তাকে বিষন্নতা কিংবা হতাশা সহজে হ্রাস করতে পারে না।

৩. রোগ প্রতিরোধ করে

রোগ মানুষের সবচেয়ে বড় শত্রু। এমন কোন মানুষ পৃথিবীতে খুঁজে পাওয়া অসম্ভব, যিনি কোন প্রকার রোগে ভোগেন নি। মানুষ হিসেবে আমাদের সবচেয়ে বড় প্রচেষ্টা হচ্ছে, রোগমুক্ত থাকা। আর এই রোগ প্রতিরোধেই সাহায্য করে ব্যায়াম। নিয়মিত ব্যায়াম খুব প্রয়োজনীয় শারীরিক ফিটনেস ও ভালো স্বাস্থ্যের জন্য। এটা বড় বড় রোগ যেমন হৃদরোগ, ক্যান্সার, উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিকস ও অন্যান্য রোগ হওয়ার ঝুঁকি কমায়। ব্যায়াম আপনার চেহারার আবেদন বাড়াতে এবং দ্রুত বুড়িয়ে যাওয়া ঠেকাতে সাহায্য করবে। তাই সুস্থ থাকতে ব্যায়ামের কোন বিকল্প নেই।ব্যায়্যাম খুব রোগ প্রতিরোধ করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

৪. শরীরকে করে শক্তিশালী

মাংসপেশীর গাঁথুনি যার যত ভালো, সে ততো বেশি শক্তিশালী। ব্যায়াম প্রতিটি পেশীকে আলাদা আলাদা ভাবে গড়ে তোলে। কারণ আপনি ঠিক যেভাবে আপানার পেশীকে শক্তিশালী করতে চান, সেভাবেই করতে পারবেন।

৫. ভালো ঘুম এ সহায়ক,

আপনি নিশ্চয়ই দেখেছেন যে, আপনি যখন ক্লান্ত থাকেন, তখন খুব গভীর ঘুম হয়। তাই যাদের ঘুমের সমস্যা আছে তাদের জন্য ব্যায়াম অত্যন্ত উপকারী। ব্যায়াম অনিদ্রা দূর করে ও ভালো ঘুম এ সহায়তা করে।

৭. সকালে দৌড়ানো,,,

সকালে দৌড়ালে আমাদের শরীর ভালো থাকে। আর সকালে দৌড়ালে আমাদের মন ভালো হয় ফলে আমাদের সারা দিন ভালো কাটে। সকালে দৌড়ালে বিভিন্ন ধরনের রোগ থেকে রক্ষা পাওয়া যায়, যেমন : ড্যায়বেটিস,,ক্যান্সার বিভিন্ন ধরনের রোগ থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

৮. সাতার কাটার উপকার,,

সাতার এমন একাটা ব্যায়াম যেটা শুধু গরম এর দিন করা হয়,,।সাতার অনান্য ব্যায়াম এর থেকে অনেক উপকারী। তাই আমরা সবাই ভালো ভাবে সাতার কাটাব।।

৯. ওজন নিয়ন্ত্রণ করে,

আমরা ওজন নিয়ন্ত্রণ করার অনেক চেষ্টা করি।তার মধ্যে অনেক গুলো কাজ করে আর কোনো গুলা কিছু কাজ করে না। কিন্তু ওজন নিয়ন্ত্রণ করতে বা কমাতে ব্যায়াম খুব বেশি কাজ করে। প্রতি সকালে 30 মিনিট আর বিকাল এ 30 মিনিট হাটলে আমাদের শরীর এর ওজন অনেকটা কমে যাবে বা নিয়ন্ত্রণ এ আসবে,, অথবা জিম এ গিয়ে ব্যায়াম করে আমরা শরীর এর ওজন নিয়ন্ত্রণ করতে বা কমাতে পারি।।

১০. হার ও পেশি কে মজবুত করে,,

আমার যদি প্রতিদিন ব্যায়াম করি তাহলে আমাদের শরীর চালু থাকবে,, শরীর এর হার ও পেশি গুলো প্রতিনিয়ত চলাচল করবে, ফলে এসব জিনিস শক্তিশালী ও মজবুত হবে।
তাই আমরা সবাই প্রতিদিন ব্যায়াম করব।আর আমি ব্যায়াম সম্পর্কে যেসব উপকারীতা লিখেছি তার থেকে আরও অনেক বেশি ব্যায়াম এর উপকারীতা আছে।। তাই আমরা সবাই প্রতি দিন ব্যায়াম করার চেষ্টা করব।।।

,,আজ আর লিখছিনা,,,,

সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন আর আমাদের সাইটের সাথে থাকবেন নতুন নতুন পোস্ট পেতে এবং আপনাদের বন্ধুদের শেয়ার করে দিবেন পোস্টটি ভালো লাগলে । আমার আর অন্যান্য পোস্ট:

লম্বা হওয়ার সহজ ৮ টি বৈজ্ঞানিক উপায়

যে কোন প্রয়োজনে আমার সাথে যোগাযোগ করুন :

facebook contact me

,,,,আল্লাহ হাফিজ,,,

প্রতিদিন ব্যায়াম এর উপকারীতা

আপডেট সময় : 10:43:41 am, Saturday, 9 April 2022

আসসালামু আলাইকুম।

আশা করি সবাই ভালো আছেন। আমি আজকে আপনাদের কাছে একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে এসেছি। বিষয়টি হচ্ছে যে ব্যায়াম এর উপকারীতা।।। শুরু করা যাক…….

প্রতিদিন ব্যায়াম এর উপকারীতা”

প্রতিদিন ব্যায়াম এর উপকারীতা

১. ওজন নিয়ন্ত্রণ করে

সুস্থ থাকার আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হল শরীরের বাড়তি ওজন ঝরিয়ে ফেলা। কিন্তু বাড়তি ওজন কমাতে ব্যায়ামের কোন বিকল্প নেই। শারীরিক চর্চা করলে ক্যালোরি খরচ হয়। এভাবে আমরা যতই ব্যায়াম করবো ততই আমাদের ক্যালোরি খরচ হবে এবং যার ফলে শরীরের ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

২. ব্যায়াম মনকে ভালো রাখে

ব্যায়ামের মাধ্যমে নানা রকম রাসায়নিক পদার্থ মস্তিষ্ক হতে নির্গত হয়। এসব রাসায়নিক উপাদান চিত্ত প্রফুল্ল করে এবং শারীরিক ও মানসিক প্রশান্তির পাশাপাশি চেহারায় ঔজ্জ্বল্য বাড়ায়। যিনি নিয়মিত ব্যায়াম করেন তাকে বিষন্নতা কিংবা হতাশা সহজে হ্রাস করতে পারে না।

৩. রোগ প্রতিরোধ করে

রোগ মানুষের সবচেয়ে বড় শত্রু। এমন কোন মানুষ পৃথিবীতে খুঁজে পাওয়া অসম্ভব, যিনি কোন প্রকার রোগে ভোগেন নি। মানুষ হিসেবে আমাদের সবচেয়ে বড় প্রচেষ্টা হচ্ছে, রোগমুক্ত থাকা। আর এই রোগ প্রতিরোধেই সাহায্য করে ব্যায়াম। নিয়মিত ব্যায়াম খুব প্রয়োজনীয় শারীরিক ফিটনেস ও ভালো স্বাস্থ্যের জন্য। এটা বড় বড় রোগ যেমন হৃদরোগ, ক্যান্সার, উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিকস ও অন্যান্য রোগ হওয়ার ঝুঁকি কমায়। ব্যায়াম আপনার চেহারার আবেদন বাড়াতে এবং দ্রুত বুড়িয়ে যাওয়া ঠেকাতে সাহায্য করবে। তাই সুস্থ থাকতে ব্যায়ামের কোন বিকল্প নেই।ব্যায়্যাম খুব রোগ প্রতিরোধ করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

৪. শরীরকে করে শক্তিশালী

মাংসপেশীর গাঁথুনি যার যত ভালো, সে ততো বেশি শক্তিশালী। ব্যায়াম প্রতিটি পেশীকে আলাদা আলাদা ভাবে গড়ে তোলে। কারণ আপনি ঠিক যেভাবে আপানার পেশীকে শক্তিশালী করতে চান, সেভাবেই করতে পারবেন।

৫. ভালো ঘুম এ সহায়ক,

আপনি নিশ্চয়ই দেখেছেন যে, আপনি যখন ক্লান্ত থাকেন, তখন খুব গভীর ঘুম হয়। তাই যাদের ঘুমের সমস্যা আছে তাদের জন্য ব্যায়াম অত্যন্ত উপকারী। ব্যায়াম অনিদ্রা দূর করে ও ভালো ঘুম এ সহায়তা করে।

৭. সকালে দৌড়ানো,,,

সকালে দৌড়ালে আমাদের শরীর ভালো থাকে। আর সকালে দৌড়ালে আমাদের মন ভালো হয় ফলে আমাদের সারা দিন ভালো কাটে। সকালে দৌড়ালে বিভিন্ন ধরনের রোগ থেকে রক্ষা পাওয়া যায়, যেমন : ড্যায়বেটিস,,ক্যান্সার বিভিন্ন ধরনের রোগ থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

৮. সাতার কাটার উপকার,,

সাতার এমন একাটা ব্যায়াম যেটা শুধু গরম এর দিন করা হয়,,।সাতার অনান্য ব্যায়াম এর থেকে অনেক উপকারী। তাই আমরা সবাই ভালো ভাবে সাতার কাটাব।।

৯. ওজন নিয়ন্ত্রণ করে,

আমরা ওজন নিয়ন্ত্রণ করার অনেক চেষ্টা করি।তার মধ্যে অনেক গুলো কাজ করে আর কোনো গুলা কিছু কাজ করে না। কিন্তু ওজন নিয়ন্ত্রণ করতে বা কমাতে ব্যায়াম খুব বেশি কাজ করে। প্রতি সকালে 30 মিনিট আর বিকাল এ 30 মিনিট হাটলে আমাদের শরীর এর ওজন অনেকটা কমে যাবে বা নিয়ন্ত্রণ এ আসবে,, অথবা জিম এ গিয়ে ব্যায়াম করে আমরা শরীর এর ওজন নিয়ন্ত্রণ করতে বা কমাতে পারি।।

১০. হার ও পেশি কে মজবুত করে,,

আমার যদি প্রতিদিন ব্যায়াম করি তাহলে আমাদের শরীর চালু থাকবে,, শরীর এর হার ও পেশি গুলো প্রতিনিয়ত চলাচল করবে, ফলে এসব জিনিস শক্তিশালী ও মজবুত হবে।
তাই আমরা সবাই প্রতিদিন ব্যায়াম করব।আর আমি ব্যায়াম সম্পর্কে যেসব উপকারীতা লিখেছি তার থেকে আরও অনেক বেশি ব্যায়াম এর উপকারীতা আছে।। তাই আমরা সবাই প্রতি দিন ব্যায়াম করার চেষ্টা করব।।।

,,আজ আর লিখছিনা,,,,

সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন আর আমাদের সাইটের সাথে থাকবেন নতুন নতুন পোস্ট পেতে এবং আপনাদের বন্ধুদের শেয়ার করে দিবেন পোস্টটি ভালো লাগলে । আমার আর অন্যান্য পোস্ট:

লম্বা হওয়ার সহজ ৮ টি বৈজ্ঞানিক উপায়

যে কোন প্রয়োজনে আমার সাথে যোগাযোগ করুন :

facebook contact me

,,,,আল্লাহ হাফিজ,,,