ঢাকা 12:33 pm, Saturday, 4 February 2023

ই-মেইল মার্কেটিং কি? কেন ই-মেইল মার্কেটিং করতে হয়?

  • আপডেট সময় : 05:09:34 am, Wednesday, 25 May 2022 416 বার পড়া হয়েছে

ইলেকট্রনিক মেইল মার্কেটিং কি-আসসালামু আলাইকুম! কেমন আছেন সবাই? আশা করি সবাই ভালো আছেন। আমিও আল্লাহর রহমতে ভালই আছি। তো বন্ধুরা চলুন শুরু করা যাক :

আমরা অনেকেই আছি যারা ই-মেইল মার্কেটিং সম্পর্কে জানতে চাই। কারণ অনলাইনে মার্কেটিং বা ডিজিটাল ভাবে কোন প্রডাক্ট সেল করতে চাইলে ই-মেইল মার্কেটিং এর বিকল্প আর অন্য কিছু হতে পারে না। ইন্টারনেটে ডিজিটালি যেকোনো পণ্য বা সার্ভিস মার্কেটিং করার এ অনেক সহজ ও অনেক লাভজনক উপায়। ই-মেইলিং মার্কেটিং এমন একটি অনলাইন মার্কেটিং মাধ্যম যার মাধ্যমে আপনি আপনার পন্য, কাস্টমার ইমেইল এর মাধ্যমে অনেকগুলো কনস্ট্যান্ট ফাইল পাবেন। এবং, আপনার পণ্যের বিজ্ঞাপন করার জন্য কোনো জায়গায় যেতে হবে না। আজ আমরা এই আর্টিকেলের মাধ্যমে জানানোর চেষ্টা করব

ই-মেইল মার্কেটিং কি? কেন ই-মেইল মার্কেটিং করতে হয়?

ই-মেইল মার্কেটিং কি? কেন ই-মেইল মার্কেটিং করতে হয়?

কিভাবে ই-মেইল মার্কেটিং করা হয় ইত্যাদি বিষয়গুলোই নিয়েই সাজানো হয়েছে আজকে আমাদের এই আর্টিকেল ।

ইলেকট্রনিক মেইল মার্কেটিং কি

ইলেকট্রনিক মেইল মার্কেটিং?

ই-মেইল মার্কেটিং হচ্ছে এমন একধরনের মার্কেটিং পদ্ধতি যে প্রক্রিয়ার ডিজিটালভাবে যেকোন প্রডাক্ট বা সার্ভিস বিক্রি বা বিজ্ঞাপন করা যায়। এখন আমরা যেই প্রোডাক্ট বা সেবার প্রচার বা মার্কেটিং ইমেইল এর মাধ্যমে করি, সেই মার্কেটিং এর প্রক্রিয়াকেই ই-মেইল মার্কেটিং বলা হয়। ই-মেইল মার্কেটিং করার জন্য অবশ্যই আপনাকে ইলেকট্রনিক মেইল অ্যাকাউন্ট ক্রিয়েট করা জানতে হবে।

ইলেকট্রনিক মেইল মার্কেটিং কি

ই-মেইল অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম

ইলেকট্রনিক মেইল মার্কেটিং শুরু করার সর্ব প্রথম ধাপ হচ্ছে ই-মেইল অ্যাকাউন্ট ক্রিয়েট করা। যদিও ই-মেইল অ্যাকাউণ্ট খোলার নিয়ম সহজ। তবে, বেশীর ভাগ মানূষ যেহেতু জি-মেইল বা গুগল মেইল ব্যবহার করে থাকে তাই আমি

উদাহরণসরূপ দেখিয়ে দিচ্ছি্‌ ঃ

ইলেকট্রনিক মেইল মার্কেটিং কি

প্রথমে Gmail.com এ প্রবশ করতে হবে।
এরপর ক্রিয়েট এ নিউ জিমেইল একাউন্ট এ ক্লিক করতে হবে।
এরপর আপনার যবতীয় তথ্য যেমনঃ আপনার না,জন্ম নিবন্ধন, আপনার ভেলীড মোবাইল নাম্বার এবং আপনার পছন্দমত একটি ৮ সংখ্যার পাসওয়ার্ড।
আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য পূরন করার পর আপনার নতুন জি-মেইল বা গুগল মেইল একাউন্ট তৈরী হয়ে যাবে।

কিভাবে ই-মেইল মার্কেটিং করা হয়?

আপনার একটি নতুন প্রডাক্ট বা সার্ভি নতুনভাবে মার্কেটে এসেছে এবং আপনি সেই বিষয়ে লোকেদের জানাতে চান । এর বাইরেও আপনার কোনো প্রোডাক্ট এর সুবিধার বিষয়ে আপনি মার্কেটিং করতে চাচ্ছেন,
আপনার , ইমেইল এর দ্বারা লোকেদের নিজের প্রডাক্ট বা সার্ভিসের ব্যাপারে জানাতে হবে। এবং, তারপর তারা যদি আগ্রহী থাকে তবে, নিশ্চয় আপনার প্রোডাক্ট বা সার্ভিস তারা কিনবেন এবং ব্যবহার করবেন।

ইলেকট্রনিক মেইল মার্কেটিং কি

আমরা সাধারণ ভাবে যেরকম ইমেইল লিখি ঠিক সেভাবেই আপনার নিজের offer, business বা service এর ব্যাপারে মেইলে লিখতে হবে। মেইল এমনভাবে লিখবেন যাতে করে আপনার ইমেইল এর বিষয় লোকেরা পড়েই বুঝতে পারেন। শেষে, ইমেইল লেখা হলে এক সাথে হাজার হাজার লোকেদের ইমেইল আইডিতে পাঠিয়ে দিতে হবে। আর এভাবেই ই-মেইল মার্কেটিং করা হয়। আর মজার ব্যাপার হচ্ছে আপনার কাছে যদি হাজার হাজার ই-মেইলের একাউন্ট সংগ্রহ করা থাকে তাহলে আপনি চাইলে এই টার্গেটেড ই-মেইল অন্যদের কাছে বিক্রি করে ভালো পরিমাণ টাকা আয় করতে পারেন।

ইমেইল মার্কেটিং করার নিয়ম

ইমেইল মার্কেটিং এর মূল কথা হলো অন্য অন্য ইমেইল আইডিতে নিজের বানানো ইমেইল পাঠানো। আর এই এ-ইমেইলে প্রডাক্ট বা সার্ভিসের প্রমোশন করা। তবে, আপনি ই-মেইল মার্কেটিং করার জন্য গুগল ,ইয়াহু বা আউটলুক এর মত সার্ভিস দিয়ে ইমেইল মার্কেটিং করতে পারবেন না । কারণ এই সার্ভিসগুলোতে একসাথে অধিক ইলেকট্রনিক মেইল সেন্ড করা বা পাঠানো সম্ভব নয়। যদিও বেশ কয়েকটি মেইল পাঠানো যায় । তবে,বেশীর ভাগ ইমেইল গুলো ব্লক লিস্টে বা স্প্যাম মেইলে পড়ে থাকে। ই-মেইল মার্কেটিং করার জন্য আপনাকে পেইড টুল ব্যবহার করতে হবে ।

ইলেকট্রনিক মেইল মার্কেটিং কি

আপনার ব্যবহার করতে হবে কিছু ইলেকট্রনিক মেইল মার্কেটিং টুলস বা website এর। অনলাইনে অনেক eই-মেইল মার্কেটিং টুলস রয়েছে যেগুলির ব্যবহার করে এক সাথেই হাজার হাজার লোকেদের ইমেইল পাঠিয়ে আপনি নিজের সার্এভিসর মার্কেটিং করতে পারবেন। এমন টুলস এর মধ্যে অন্যতম –

 FeedBurner
Mailchimp
SendPress (ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন)
Drip
MailerLite

শেষ কথাঃ

ই-মেইল মার্কেটিং নিয়ে
আমরা যারা ডিজিটাল মার্কেটার আছি তাদের কাছে অন্যতম মার্কেটিং ব্যবস্থা হচ্ছে ই-মেইল মার্কেটিং। এর প্রধান কারণ হচ্ছে ই-মেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে খুব সহজেই নিজের টার্গেটেড ক্রেতার কাছে নিজের বা অন্য কোন কোম্পানী প্রডাক্ট বিক্রি করা যায়। আজকের আলোচনায় আমি চেষ্টা করেছি আপনাদের সাথে ই-মেইল মার্কেটিং নিয়ে বিশদভাবে আলোচনা করার।

See More>>>

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কিভাবে শুরু করবেন?

ধন্যবাদ সবাইকে

ই-মেইল মার্কেটিং কি? কেন ই-মেইল মার্কেটিং করতে হয়?

আপডেট সময় : 05:09:34 am, Wednesday, 25 May 2022

ইলেকট্রনিক মেইল মার্কেটিং কি-আসসালামু আলাইকুম! কেমন আছেন সবাই? আশা করি সবাই ভালো আছেন। আমিও আল্লাহর রহমতে ভালই আছি। তো বন্ধুরা চলুন শুরু করা যাক :

আমরা অনেকেই আছি যারা ই-মেইল মার্কেটিং সম্পর্কে জানতে চাই। কারণ অনলাইনে মার্কেটিং বা ডিজিটাল ভাবে কোন প্রডাক্ট সেল করতে চাইলে ই-মেইল মার্কেটিং এর বিকল্প আর অন্য কিছু হতে পারে না। ইন্টারনেটে ডিজিটালি যেকোনো পণ্য বা সার্ভিস মার্কেটিং করার এ অনেক সহজ ও অনেক লাভজনক উপায়। ই-মেইলিং মার্কেটিং এমন একটি অনলাইন মার্কেটিং মাধ্যম যার মাধ্যমে আপনি আপনার পন্য, কাস্টমার ইমেইল এর মাধ্যমে অনেকগুলো কনস্ট্যান্ট ফাইল পাবেন। এবং, আপনার পণ্যের বিজ্ঞাপন করার জন্য কোনো জায়গায় যেতে হবে না। আজ আমরা এই আর্টিকেলের মাধ্যমে জানানোর চেষ্টা করব

ই-মেইল মার্কেটিং কি? কেন ই-মেইল মার্কেটিং করতে হয়?

ই-মেইল মার্কেটিং কি? কেন ই-মেইল মার্কেটিং করতে হয়?

কিভাবে ই-মেইল মার্কেটিং করা হয় ইত্যাদি বিষয়গুলোই নিয়েই সাজানো হয়েছে আজকে আমাদের এই আর্টিকেল ।

ইলেকট্রনিক মেইল মার্কেটিং কি

ইলেকট্রনিক মেইল মার্কেটিং?

ই-মেইল মার্কেটিং হচ্ছে এমন একধরনের মার্কেটিং পদ্ধতি যে প্রক্রিয়ার ডিজিটালভাবে যেকোন প্রডাক্ট বা সার্ভিস বিক্রি বা বিজ্ঞাপন করা যায়। এখন আমরা যেই প্রোডাক্ট বা সেবার প্রচার বা মার্কেটিং ইমেইল এর মাধ্যমে করি, সেই মার্কেটিং এর প্রক্রিয়াকেই ই-মেইল মার্কেটিং বলা হয়। ই-মেইল মার্কেটিং করার জন্য অবশ্যই আপনাকে ইলেকট্রনিক মেইল অ্যাকাউন্ট ক্রিয়েট করা জানতে হবে।

ইলেকট্রনিক মেইল মার্কেটিং কি

ই-মেইল অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম

ইলেকট্রনিক মেইল মার্কেটিং শুরু করার সর্ব প্রথম ধাপ হচ্ছে ই-মেইল অ্যাকাউন্ট ক্রিয়েট করা। যদিও ই-মেইল অ্যাকাউণ্ট খোলার নিয়ম সহজ। তবে, বেশীর ভাগ মানূষ যেহেতু জি-মেইল বা গুগল মেইল ব্যবহার করে থাকে তাই আমি

উদাহরণসরূপ দেখিয়ে দিচ্ছি্‌ ঃ

ইলেকট্রনিক মেইল মার্কেটিং কি

প্রথমে Gmail.com এ প্রবশ করতে হবে।
এরপর ক্রিয়েট এ নিউ জিমেইল একাউন্ট এ ক্লিক করতে হবে।
এরপর আপনার যবতীয় তথ্য যেমনঃ আপনার না,জন্ম নিবন্ধন, আপনার ভেলীড মোবাইল নাম্বার এবং আপনার পছন্দমত একটি ৮ সংখ্যার পাসওয়ার্ড।
আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য পূরন করার পর আপনার নতুন জি-মেইল বা গুগল মেইল একাউন্ট তৈরী হয়ে যাবে।

কিভাবে ই-মেইল মার্কেটিং করা হয়?

আপনার একটি নতুন প্রডাক্ট বা সার্ভি নতুনভাবে মার্কেটে এসেছে এবং আপনি সেই বিষয়ে লোকেদের জানাতে চান । এর বাইরেও আপনার কোনো প্রোডাক্ট এর সুবিধার বিষয়ে আপনি মার্কেটিং করতে চাচ্ছেন,
আপনার , ইমেইল এর দ্বারা লোকেদের নিজের প্রডাক্ট বা সার্ভিসের ব্যাপারে জানাতে হবে। এবং, তারপর তারা যদি আগ্রহী থাকে তবে, নিশ্চয় আপনার প্রোডাক্ট বা সার্ভিস তারা কিনবেন এবং ব্যবহার করবেন।

ইলেকট্রনিক মেইল মার্কেটিং কি

আমরা সাধারণ ভাবে যেরকম ইমেইল লিখি ঠিক সেভাবেই আপনার নিজের offer, business বা service এর ব্যাপারে মেইলে লিখতে হবে। মেইল এমনভাবে লিখবেন যাতে করে আপনার ইমেইল এর বিষয় লোকেরা পড়েই বুঝতে পারেন। শেষে, ইমেইল লেখা হলে এক সাথে হাজার হাজার লোকেদের ইমেইল আইডিতে পাঠিয়ে দিতে হবে। আর এভাবেই ই-মেইল মার্কেটিং করা হয়। আর মজার ব্যাপার হচ্ছে আপনার কাছে যদি হাজার হাজার ই-মেইলের একাউন্ট সংগ্রহ করা থাকে তাহলে আপনি চাইলে এই টার্গেটেড ই-মেইল অন্যদের কাছে বিক্রি করে ভালো পরিমাণ টাকা আয় করতে পারেন।

ইমেইল মার্কেটিং করার নিয়ম

ইমেইল মার্কেটিং এর মূল কথা হলো অন্য অন্য ইমেইল আইডিতে নিজের বানানো ইমেইল পাঠানো। আর এই এ-ইমেইলে প্রডাক্ট বা সার্ভিসের প্রমোশন করা। তবে, আপনি ই-মেইল মার্কেটিং করার জন্য গুগল ,ইয়াহু বা আউটলুক এর মত সার্ভিস দিয়ে ইমেইল মার্কেটিং করতে পারবেন না । কারণ এই সার্ভিসগুলোতে একসাথে অধিক ইলেকট্রনিক মেইল সেন্ড করা বা পাঠানো সম্ভব নয়। যদিও বেশ কয়েকটি মেইল পাঠানো যায় । তবে,বেশীর ভাগ ইমেইল গুলো ব্লক লিস্টে বা স্প্যাম মেইলে পড়ে থাকে। ই-মেইল মার্কেটিং করার জন্য আপনাকে পেইড টুল ব্যবহার করতে হবে ।

ইলেকট্রনিক মেইল মার্কেটিং কি

আপনার ব্যবহার করতে হবে কিছু ইলেকট্রনিক মেইল মার্কেটিং টুলস বা website এর। অনলাইনে অনেক eই-মেইল মার্কেটিং টুলস রয়েছে যেগুলির ব্যবহার করে এক সাথেই হাজার হাজার লোকেদের ইমেইল পাঠিয়ে আপনি নিজের সার্এভিসর মার্কেটিং করতে পারবেন। এমন টুলস এর মধ্যে অন্যতম –

 FeedBurner
Mailchimp
SendPress (ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন)
Drip
MailerLite

শেষ কথাঃ

ই-মেইল মার্কেটিং নিয়ে
আমরা যারা ডিজিটাল মার্কেটার আছি তাদের কাছে অন্যতম মার্কেটিং ব্যবস্থা হচ্ছে ই-মেইল মার্কেটিং। এর প্রধান কারণ হচ্ছে ই-মেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে খুব সহজেই নিজের টার্গেটেড ক্রেতার কাছে নিজের বা অন্য কোন কোম্পানী প্রডাক্ট বিক্রি করা যায়। আজকের আলোচনায় আমি চেষ্টা করেছি আপনাদের সাথে ই-মেইল মার্কেটিং নিয়ে বিশদভাবে আলোচনা করার।

See More>>>

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কিভাবে শুরু করবেন?

ধন্যবাদ সবাইকে