ঢাকা 11:52 am, Saturday, 4 February 2023

মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস

  • আপডেট সময় : 10:35:50 pm, Friday, 9 September 2022 105 বার পড়া হয়েছে

Assalamuyalaikum bhai/bon

মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস-মাইক্রোসফট নামটির সাথে হয়ত অনেকে পরিচিত। কম্পিউটারে আমারা সাধারণত যে অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করে থাকি তা মূলত এই মাইক্রোসফট কোম্পানির।

মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস

কিন্তু আমারা এখানে আজ মাইক্রোসফট কোম্পানি নিয়ে নয়। বরং তাদের তৈরি করা একটা চশমা নিয়ে আলোচনা করব। যেটা শাকিব খানের চশমার মতো নয় বরং ভয়ংকর।

মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস

কি ভয়ংকর? হ্যা ভয়ংকর। যে চশমা কোন সাধারণ মানুষ বা ধনীরা নয় বরং ব্যবহার করবে মার্কিন সেনাবাহিনী। যে চশমার নাম মাইক্রোসফট Combat Goggles। মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস ।

চলুন বিস্তারিত জেনে নেই।

কমব্যাট গগলস কি :

কমব্যাট গগলস হলো মাইক্রোসফট কোম্পানির বানানো হলোলেন্স Goggles এর কাস্টোমাইজড ভার্সন। যার ফলে একজন মানুষ খালি চোখে যা দেখতে পায় তার থেকেও বেশি তথ্য দেখতে পারবে এই উপনেত্র দিয়ে। এই চশমার সিস্টেমে 3D মানচিত্র যুক্ত করা আছে। যা সেনাদের চোখের সামনেই থাকে।

এই উপনেত্র ব্যবহার করে অন্ধকার, ধোঁয়া & যেকোনো কোণে থাকা বস্তু দেখা সম্ভব। মাইক্রোসফট কোম্পানি মার্কিন সেনাবাহিনীর জন্য যে চশমা বানিয়েছে তা মূলত যুদ্ধের ময়দানে ব্যবহার করার জন্য।

মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস

এ অনেক প্রযুক্তির সমন্বয় করা হয়েছে। এই দূরদর্শন কাচ ব্যবহার করে GPS ( Global Positioning System ) এর মাধ্যমে কোন স্থান এর অবস্থান জানা সম্ভব। 

জিপিএস এর পাশাপাশি ল্যান্ড নেভিগেশন টুলস ও মিশন টুলস দেওয়া আছে। যার কারণে যুদ্ধের সময় নিখুঁত পরিকল্পনার মাধ্যমে যুদ্ধ শেষ করা যাবে বলে জানায় মাইক্রোসফট কোম্পানি।

কমব্যাট গগলস এর সুবিধা:

যুদ্ধের সময় সেনারা যে কাগজের মানচিত্র ব্যবহার করে তা সহজে বোঝা অনেক সময় সাপেক্ষ। কিন্তু Combat Goggles এ থাকা 3D দূরদর্শন কাচ এর কারণে সময় বেচে যায়। অনেক কম সময়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া যায় এই চশমা ব্যবহার করলে।

কোন জায়গায় শত্রুর অবস্থান আছে তা নিয়ে সব সেনার মধ্যে সবসময় যোগাযোগ করতে হয়। যদি সব সেনাই এই দূরদর্শন কাচ ব্যবহার করে তাহলে তাদের মধ্যে সবসময় তাদের যোগাযোগ করার প্রয়োজন নেই। নাইট ভিশন সুবিধা থাকার কারণে রাতের বেলাতেও পরিষ্কার দেখা যাবে।

মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস

তাছাড়া থার্মাল ইমেজারি টেকনোলজি আছে এই চশমায়। থার্মাল ইমেজারি টেকনোলজি থাকায় ধোঁয়ার মধ্যেও কোন বস্তুকে দেখা যাবে।

মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস

আমরা খালি চোখে ১২০° দেখতে পেলেও এই অনুবীক্ষনার্থ কাচ ব্যবহার করে সেনাবাহিনীরা ১৮০° পর্যন্ত দেখতে পারবে। যার ফলে একজন বিপক্ষ সেনা কোন কক্ষের ভিতর এ কোণার লুকিয়ে থাকলে মার্কিন সেনাবাহিনী সেটাও দেখতে পারবে। 

মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস

মার্কিন সেনারা বিভিন্ন প্রশিক্ষণে এই অনুবীক্ষনার্থ কাচ ব্যবহার করেছে। তারা বলছেন এই কমব্যাট গগলস ব্যবহার করে যুদ্ধ করলে একজন সেনার যুদ্ধে বেচে থাকা ও যুদ্ধে জিতার সম্ভাবনা অনেকগুণ বাড়িয়ে দিবে।

কমব্যাট গগলস কেনার অনুমোদন:

মার্কিন সেনাবাহিনী ২০১০ সালে প্রায় ৫ হাজার কমব্যাট গগলস কেনার জন্য চুক্তি করে মাইক্রোসফটের সাথে । খুব শিগগিরই এই অনুবীক্ষনার্থ কাচ গুলো মার্কিন সেনাবাহিনীর হাতে তুলে দিবে মাইক্রোসফট কোম্পানি।

মার্কিন সেনাবাহিনী ও মাইক্রোসফট কোম্পানি ২০১৮ সালে প্রথম বারের মতো ৪৮ কোটি ডলারের চুক্তি করে। কিন্তু মার্কিন সেনাবাহিনী জানিয়েছে আগামী ১০ বছরে এই বিশেষ চশমা কেনার জন্য তারা ২ হাজার ১০০ কোটি ডলার খরচ করতে রাজি আছে।

মাইক্রোসফট কোম্পানির কর্মীদের বিরোধিতা:

২০১৯ সালের দিকে মার্কিন সেনাবাহিনীর সাথে মাইক্রোসফট কোম্পানির করা চুক্তি বাতিল করার দাবি জানান মাইক্রোসফট কোম্পানির কর্মীরা। তাদের দাবি এই চশমা ব্যবহার করা হবে মানুষ মারার জন্য। তারা চান না মানুষ মারার সাথে কোম্পানি & এর কর্মীরা জড়িত থাকুক।

তারা আরো বলেন, চশমায় ব্যবহৃত সফটওয়্যার এর ব্যাপারে তাদের আগে বলা হয় নি। এমন একটি কোম্পানি মারনাস্ত্র বানানোয় নিন্দা জানায় কর্মীরা। কিন্তু মাইক্রোসফট কোম্পানির কর্মকর্তারা জানান দেশ রক্ষার জন্য প্রযুক্তি উন্নয়নে তারা এই কাজ করছে।

মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস

আসলেই কি মাইক্রোসফট কোম্পানির কমব্যাট গগলস দিয়ে অন্যায়ভাবে মানুষ মারা হবে। নাকি দেশের নিরাপত্তার জন্য ব্যবহার করা হবে সেটাই দেখার অপেক্ষা। যদি অন্যান্য শক্তিশালী দেশ অন্যান্য আইটি কোম্পানির কাছ থেকে এমন উপনেত্র বানায় তাহলে যুদ্ধক্ষেত্রে অনেক ভয়াবহ অবস্থা তৈরি হবে। 

আবার এমনটাও না যে অন্য কোন দেশ বা কোম্পানি নতুন কোন প্রযুক্তি বা অস্ত্র বানাবে না। তাহলে কি হবে?

আরও দেখুন>>>

ইভিএম (EVM) মেশিন কী, কিভাবে কাজ করে, সুবিধা

মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস

আপডেট সময় : 10:35:50 pm, Friday, 9 September 2022

Assalamuyalaikum bhai/bon

মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস-মাইক্রোসফট নামটির সাথে হয়ত অনেকে পরিচিত। কম্পিউটারে আমারা সাধারণত যে অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করে থাকি তা মূলত এই মাইক্রোসফট কোম্পানির।

মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস

কিন্তু আমারা এখানে আজ মাইক্রোসফট কোম্পানি নিয়ে নয়। বরং তাদের তৈরি করা একটা চশমা নিয়ে আলোচনা করব। যেটা শাকিব খানের চশমার মতো নয় বরং ভয়ংকর।

মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস

কি ভয়ংকর? হ্যা ভয়ংকর। যে চশমা কোন সাধারণ মানুষ বা ধনীরা নয় বরং ব্যবহার করবে মার্কিন সেনাবাহিনী। যে চশমার নাম মাইক্রোসফট Combat Goggles। মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস ।

চলুন বিস্তারিত জেনে নেই।

কমব্যাট গগলস কি :

কমব্যাট গগলস হলো মাইক্রোসফট কোম্পানির বানানো হলোলেন্স Goggles এর কাস্টোমাইজড ভার্সন। যার ফলে একজন মানুষ খালি চোখে যা দেখতে পায় তার থেকেও বেশি তথ্য দেখতে পারবে এই উপনেত্র দিয়ে। এই চশমার সিস্টেমে 3D মানচিত্র যুক্ত করা আছে। যা সেনাদের চোখের সামনেই থাকে।

এই উপনেত্র ব্যবহার করে অন্ধকার, ধোঁয়া & যেকোনো কোণে থাকা বস্তু দেখা সম্ভব। মাইক্রোসফট কোম্পানি মার্কিন সেনাবাহিনীর জন্য যে চশমা বানিয়েছে তা মূলত যুদ্ধের ময়দানে ব্যবহার করার জন্য।

মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস

এ অনেক প্রযুক্তির সমন্বয় করা হয়েছে। এই দূরদর্শন কাচ ব্যবহার করে GPS ( Global Positioning System ) এর মাধ্যমে কোন স্থান এর অবস্থান জানা সম্ভব। 

জিপিএস এর পাশাপাশি ল্যান্ড নেভিগেশন টুলস ও মিশন টুলস দেওয়া আছে। যার কারণে যুদ্ধের সময় নিখুঁত পরিকল্পনার মাধ্যমে যুদ্ধ শেষ করা যাবে বলে জানায় মাইক্রোসফট কোম্পানি।

কমব্যাট গগলস এর সুবিধা:

যুদ্ধের সময় সেনারা যে কাগজের মানচিত্র ব্যবহার করে তা সহজে বোঝা অনেক সময় সাপেক্ষ। কিন্তু Combat Goggles এ থাকা 3D দূরদর্শন কাচ এর কারণে সময় বেচে যায়। অনেক কম সময়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া যায় এই চশমা ব্যবহার করলে।

কোন জায়গায় শত্রুর অবস্থান আছে তা নিয়ে সব সেনার মধ্যে সবসময় যোগাযোগ করতে হয়। যদি সব সেনাই এই দূরদর্শন কাচ ব্যবহার করে তাহলে তাদের মধ্যে সবসময় তাদের যোগাযোগ করার প্রয়োজন নেই। নাইট ভিশন সুবিধা থাকার কারণে রাতের বেলাতেও পরিষ্কার দেখা যাবে।

মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস

তাছাড়া থার্মাল ইমেজারি টেকনোলজি আছে এই চশমায়। থার্মাল ইমেজারি টেকনোলজি থাকায় ধোঁয়ার মধ্যেও কোন বস্তুকে দেখা যাবে।

মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস

আমরা খালি চোখে ১২০° দেখতে পেলেও এই অনুবীক্ষনার্থ কাচ ব্যবহার করে সেনাবাহিনীরা ১৮০° পর্যন্ত দেখতে পারবে। যার ফলে একজন বিপক্ষ সেনা কোন কক্ষের ভিতর এ কোণার লুকিয়ে থাকলে মার্কিন সেনাবাহিনী সেটাও দেখতে পারবে। 

মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস

মার্কিন সেনারা বিভিন্ন প্রশিক্ষণে এই অনুবীক্ষনার্থ কাচ ব্যবহার করেছে। তারা বলছেন এই কমব্যাট গগলস ব্যবহার করে যুদ্ধ করলে একজন সেনার যুদ্ধে বেচে থাকা ও যুদ্ধে জিতার সম্ভাবনা অনেকগুণ বাড়িয়ে দিবে।

কমব্যাট গগলস কেনার অনুমোদন:

মার্কিন সেনাবাহিনী ২০১০ সালে প্রায় ৫ হাজার কমব্যাট গগলস কেনার জন্য চুক্তি করে মাইক্রোসফটের সাথে । খুব শিগগিরই এই অনুবীক্ষনার্থ কাচ গুলো মার্কিন সেনাবাহিনীর হাতে তুলে দিবে মাইক্রোসফট কোম্পানি।

মার্কিন সেনাবাহিনী ও মাইক্রোসফট কোম্পানি ২০১৮ সালে প্রথম বারের মতো ৪৮ কোটি ডলারের চুক্তি করে। কিন্তু মার্কিন সেনাবাহিনী জানিয়েছে আগামী ১০ বছরে এই বিশেষ চশমা কেনার জন্য তারা ২ হাজার ১০০ কোটি ডলার খরচ করতে রাজি আছে।

মাইক্রোসফট কোম্পানির কর্মীদের বিরোধিতা:

২০১৯ সালের দিকে মার্কিন সেনাবাহিনীর সাথে মাইক্রোসফট কোম্পানির করা চুক্তি বাতিল করার দাবি জানান মাইক্রোসফট কোম্পানির কর্মীরা। তাদের দাবি এই চশমা ব্যবহার করা হবে মানুষ মারার জন্য। তারা চান না মানুষ মারার সাথে কোম্পানি & এর কর্মীরা জড়িত থাকুক।

তারা আরো বলেন, চশমায় ব্যবহৃত সফটওয়্যার এর ব্যাপারে তাদের আগে বলা হয় নি। এমন একটি কোম্পানি মারনাস্ত্র বানানোয় নিন্দা জানায় কর্মীরা। কিন্তু মাইক্রোসফট কোম্পানির কর্মকর্তারা জানান দেশ রক্ষার জন্য প্রযুক্তি উন্নয়নে তারা এই কাজ করছে।

মাইক্রোসফট এর কমব্যাট গগলস

আসলেই কি মাইক্রোসফট কোম্পানির কমব্যাট গগলস দিয়ে অন্যায়ভাবে মানুষ মারা হবে। নাকি দেশের নিরাপত্তার জন্য ব্যবহার করা হবে সেটাই দেখার অপেক্ষা। যদি অন্যান্য শক্তিশালী দেশ অন্যান্য আইটি কোম্পানির কাছ থেকে এমন উপনেত্র বানায় তাহলে যুদ্ধক্ষেত্রে অনেক ভয়াবহ অবস্থা তৈরি হবে। 

আবার এমনটাও না যে অন্য কোন দেশ বা কোম্পানি নতুন কোন প্রযুক্তি বা অস্ত্র বানাবে না। তাহলে কি হবে?

আরও দেখুন>>>

ইভিএম (EVM) মেশিন কী, কিভাবে কাজ করে, সুবিধা