ঢাকা 11:20 am, Saturday, 4 February 2023

চাকরি না ব্যবসা কোনটা আপনার জন্য ভালো হবে?

  • আপডেট সময় : 02:00:15 pm, Friday, 3 June 2022 564 বার পড়া হয়েছে

আসসালামু আলাইকুম!

কেমন আছেন সবাই? আশা করি সবাই ভালো আছেন। আমিও আল্লাহর রহমতে ভালই আছি। আজকে আমি আলোচনা করব চাকরি না ব্যবসা কোনটা আপনার জন্য ভালো হবে?
তো বন্ধুরা চলুন শুরু করা যাক :

চাকরি না ব্যবসা কোনটা আপনার জন্য ভালো হবে?

চাকরি না ব্যবসা কোনটা আপনার জন্য ভালো হবে?

শ্রীলংকার জিডিপি হলো একাশে বিলিয়ন ডলার আর জেফ বেজোস এর নেটওয়ার্ক হল 151.1 বিলিয়ন ডলার অর্থাৎ শ্রীলংকার অলমোস্ট 2021 সালে বাংলাদেশের বাজেট ছিল 71 বিলিয়ন ডলার ফর সবচেয়ে ধনী ব্যক্তির তালিকা এক নাম্বারে থাকা বিল গেটসের নেট হচ্ছে 131.50 সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি হলেন মুকেশ আম্বানি এইচএফ ডিলস মুকেশ আম্বানি আর তাছাড়া অপরাধের তালিকায় থাকা টপ হান্ড্রেড মিলিয়ন এর মধ্যে একটা বিশ্বাস তারা প্রত্যেকেই বিজনেসম্যান তবে তাদের মধ্যে একটি বানরের মত মানুষ আছেন যারা চাকরি করে ওর ভিলেনের হয়েছে উনার স্টোরিটা আমরা পরে আলোচনা করব আজকের পোস্ট টিতে চাকরি এবং ব্যবসার মূল এনালাইসিস করব আমি এবং আমার ফ্রেন্ড খাদ্যনালী ব্যবসা করব।

চাকরি না ব্যবসা কোনটা আপনার জন্য ভালো হবে?

ডিবেটের না দরকার পড়ে না তখন মনে হয় যে বিজনেসে করতে হবে টাকা বানাতে হলে বিজনেস করতে হবে কারণ যত টাকা ততবেশি শহীদ ভুল বললা ব্যবসা তো হইতো কিন্তু সুখ নাই সুখ নাই বল সবাইকে 991 থেকে 2000 সাল পর্যন্ত একটা রিচার্জ করা হয় এবং এই রিসার্চে দেখা যায় 149 জন এর মধ্যে 48 পার্সেন্ট মানে অলমোস্ট হাফ পার্সেন্ট ব্যবসায়ীরা মনে করে যে ব্যবসা খুবই স্ট্রেসফুল একটা কাজ এবং 35% সমস্ত মনে করতেছে স্ট্রেসফুল 35% মনে করতেছে এই জিনিসটা মানসিক কষ্ট দায়ক তাদের মেন্টালি অনেক কষ্ট হয় ব্যবসা করতেন না কিন্তু কষ্টের কথা বলতেছি না ব্যবসার অপারেশনসের কষ্টের কথা বলতেছি না নিজের কষ্ট গুলোর কথা আমরা বলতেছি না এরা মনে করতেই 35% মনে করছে যে তাদের মানসিকভাবে কষ্ট হচ্ছে ব্যবসা করতে এখন প্রায় 150 জন মানুষের উপরে স্টিমরোলার একটা রিচার্জ করা হয় যারা চাকরি করে।

চাকরি না ব্যবসা কোনটা আপনার জন্য ভালো হবে?

ওইখানে কিন্তু এটা পুরোপুরি অন্যরকম এখানে মাত্র 2.5 9% আরেকটু বেশি মানুষ মনে করে যে চাকরি তাদের জন্য স্ট্রেসফুল 35 পারসেন্ট ব্যবসায়ী মনে করতেছে যে ব্যবসা করা মানসিকভাবে কষ্ট করার কোন 2.6 পারসেন্ট মানুষ মনে করতেছে চাকরি করা তাদের জন্য মানসিকভাবে কষ্ট কর বিয়ের প্রথম রাতের কিছু সুবিধা এবং অসুবিধা হচ্ছে নিশ্চিত বেতন স্কেল হয়ে থাকেন তাহলে আপনার খাওয়া পরনে কোনো টেনশনই নাই কিন্তু আপনি যদি না হয়ে থাকেন তাহলে বাংলাদেশে আপনার চাকরি পেতে অনেক সমস্যা হবে কারণ আমাদের দেশের এজুকেশন সিস্টেমটা এমনভাবে করা হয়েছে যে ছেলেমেয়েরা সিস্টেম থেকে বের হওয়ার সাথে সাথে চাকরির জন্য যারা প্রস্তুতি নেই বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশনের রিপোর্ট হিসেবে 41 তম বিসিএস এ 2135 আসনের বিপরীতে এক্সাম দিয়েছিল চার লক্ষ 75 হাজার ক্যান্ডিডেট মানে প্রতিটি পোষ্ট এর জন্য 223 জন করে প্রার্থী গ্র্যাজুয়েটরা কি থেকে।

পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট থেকে পাস করে আসাদ এর মধ্যে 75% কলেজ 5 দের মধ্যে 30 শতাংশ এবং ভার্সিটি বাসের মধ্যে 20% এক বছরের বেশি সময় ধরে বেকার থাকে আর আপনি যদি ইউনিভার্সিটি গ্র্যাজুয়েট না হয়ে থাকেন তাহলে আপনার মান্থলি ইনকাম হবে কেবল 11000 টাকা অন এভারেজ আর গ্র্যাজুয়েট হলে তা হবে 29 হাজার 932 টাকা সংসার চলবে না এবং আমি আপনার সাথে একমত সেক্ষেত্রে আপনাকে হাইলি স্কিলড হতে হবে লেবার মার্কেট সার্ভে রিপোর্ট অনুযায়ী আমাদের দেশের টেকনিক্যাল পজিশনে 69 শতাংশ স্কিলড মানুষজন নেই যেসব পজিশন এর বেতন অনেক বেশি তার মানে আপনাকে উচ্চ বেতনে চাকরি পেতে হলে আপনাকে অনেক হাইনি হাই মুষকিল হতে হবে ভালো চাকরি মানে ভালো বেতন আর ভালো বেতন মানি একটা সেফ লাইফ স্টাইল কাছে আপনি কম্ফোর্টেবল এবং সেভ লাইফ স্টাইল চান তারা চাকরির থেকে ভালো কোন কিছু নাই।

নাম্বার 2.লাইফটা লেন্স নয়টা-পাঁচটা কথাটার সাথে আমরা সবাই কমবেশি পরিচিত যেহেতু সরকারি চাকরির স্ট্রাকচার হইল 9 টা থেকে 5:00 এ কারণে 925 এই কনসেপ্টটা মোটামুটি ভাবে আমাদের মধ্যে এন্ড্রয়েড হয়ে গেছে আমরা সবার সাথে পরিচিত যে কর্মঘন্টা সকাল 9 টায় শুরু হবে এবং তারপর বিকাল পাঁচটায় কর্মঘন্টা শেষ হবে আপনি যদি একজন চাকুরীজীবি হয় আপনার পুরা জীবন কিন্তু স্ট্রাকচার এর মধ্যে রাখতে পারেন এবং অনেকেই এটা করে আপনি দেখবেন সকাল 9 টায় সেট চাকরিতে যায় বিকাল পাঁচটায় সে চাকরি থেকে আসে তাঁপুরা জীবনটা সে ওভাবে সাজায় শুক্র-শনিবার সে ছুটি কাটায় কোথাও যাওয়ার প্ল্যান করতে হলে সে ভয়ে প্ল্যান করে রাত আটটা নয়টায় কোন জায়গায় ডিনারের দাওয়াত পেলে যায় তাঁপুরা জীবন খুব সুন্দর করে এই নয়টা-পাঁচটা ছকে বাঁধা হয়ে যায় বেশি বেশি কাজ করেছে আর কোন ঝামেলা নাই তার এক্সট্রা কোন পেশার নেই চাকরির বাইরে সে তার যা ইচ্ছা তা করতে পারতেছে কোথাও কোনো সমস্যা নেই মাথার ওপর চাপ কম মন ভাল থাকে মাথায় পুরা চুল থাকে আদর হ্যান্ড আমরা এই বইয়ের একটা রিপোর্টে দেখছি 30% বিজনেস ওনার সপ্তাহে 50 ঘণ্টার বেশি কাজ করে এবং আরো বিস্তারিত বিশ্লেষণ।

আপনি যদি ব্যাপারটা চিন্তা করেন এবং আমি পুরোপুরি নিজের রিলেট করতে পারি বিষয়টা সাথে যে বিজনেসে সপ্তাহের মোটামুটি 100 ঘন্টা কাজ করি এবং আমি যতক্ষণ জেগে আছি আমি সব সময় আসলে কাজ করতেছি কিছু রেয়ার অকেশন ছাড়া মোটামুটি ভাবে আমার প্রত্যেকটা উইকি না বাড়ি আসলে কাজের পিছনে ব্যয় হচ্ছে এবং আমি যদি এটা কম্পেয়ার করার চেষ্টা করি এমন একজনের সাথে যে চাকরি করে কিভাবে মিলবে না চাকরি করে 35 থেকে 40 ঘণ্টা সপ্তাহে কাজ করে ম্যাক্সিমাম তার মধ্যেও কতটি প্রডাক্টিভ আর কতটুকুই বা এটা নিয়ে ডিবেট হইতে পারে বাট যখন আমরা ব্যবসা করতেছি কোন সিলিং এই জিনিসটার মনে করেন আমি আজকে একটা ব্যবসা দাঁড় করিয়েছি আমি একটা ব্যবসা যখন শুরু করব সেই বিজনেসের ফাইনান্সিয়াল ম্যানেজার আমি সেই বিজনেস অ্যান্ড মার্কেটিং ম্যানেজার আমি সেই বিচার হেড আমি একাউন্টস আমি অপারেশন আমি সবকিছুই কিন্তু আমি জানি একা আমি একা ব্যবসা দাঁড় করাচ্ছি যদি টু কম্পেয়ার করার চেষ্টা করেন যে চাকরি করে তার সাথে যে চাকরি করতেছে তার কিন্তু একটা ছোট্ট সিগমেন্ট নিয়ে চিন্তা করতে হচ্ছে।

আমি যদি কাউকে আমার ইউটিউবে থাম্বেল ডিজাইন করার জন্য হায়ার করি তার কাজ কিন্তু শুধুমাত্র কিভাবে ইউটিউব এর থামনেল বানানো যায় সে যদি আরো ভালো হয় আরো স্কিল রয়েছে হয়তো অন্যান্য ইউটিউবে কিরকম থামনেল দিয়ে কাজ করতেছে বা সে আমার নিজের অ্যানালিটিক্স দেখে ঘাটাঘাটি করে বের করার চেষ্টা করবে যে আগের থামনেল গুলার কনভার্শন রেট কিরকম ছিল কিন্তু রেট কিরকম ছিল ভার্সেস এখনকার গুলো কিরকম ভাবে শেষ ডিটেইলে যাবে তারপরও সেই থামনেল দুনিয়ার মধ্যে থাকবে আমি কিন্তু ওকে কাজ দিয়ে চিন্তা করতেছি আগামী তিন সপ্তাহ পরে যে আমি কি পাবলিশ করব আগে কি করছি ইউটিউবে যাব না কি টিকটকের যাব নাকি ইনস্টাগ্রামেও যাব না কি করলে কি হবে না করলে কি হবে কমেন্টে রিপ্লাই দিব নাকি শুধু ইউটিউব দুনিয়ার মধ্যে আপনি চিন্তা করেন যে আমার কাজের পরিধি কত বড় হচ্ছে প্লাস রেকর্ডেড হাবিজাবি আর তার কাজের পরিধি কতটুক ডিজাইনার যদি এক্সট্রা এফিশিয়েন্সি আনতে চাই অন্য কোন স্কিল শিখতে চায় সে সহজেই করতে পারে কারণ তার ছোট্ট একটা স্কিল নিয়ে কাজ করতে হচ্ছে স্কিলটা খারাপ নাচ কিন্তু অবশ্যই ইম্পর্টেন্ট তার কাজের পরিধি টা ছোট।

9 টা 5 টার বাইরে যে নতুন কিছু একটা শিখতে পারে গিটার বাজানো শিখতে পারে রান্না করা শিখতে পারে কোন সমস্যা নাই আমি কিন্তু জানিনা মনে হতে পারে যে চাকরি করে ব্যবসা-বাণিজ্য ঝামেলার মধ্যে যাব কেন ঝামেলা মধ্যে যাওয়াটা আসলে উপস্থিত নাকি এইখানেই স্ট্যাটাস গেমের একটা বিষয় আছে এবং আসলেই আপনার যে আইডিয়া মনে করে নাম্বারটা নতুন আইডিয়া আইডিয়া নিয়ে আপনি আপনার বস্তার বস্তার বস পর্যন্ত যাইতে পারবেন নাকি স্ট্যাটাস গেম ব্যাপারটা খুব বড় একটা রোল প্লে করে একটা পড়তে হবে দুই পক্ষই হতে পারে না যখন চাকরিতে যোগ দেবেন অনেক সময় দেখা যায় যে আপনাকে অফিস পলিটিক্স ইন বল হতে হয় তার অনেক সময় দেখা যায় কাউকে না কাউকে প্রমোশন নিতে হয় প্রশ্ন করতে পারেন যে ব্যবসায় তো আপনার কম্পিউটারের আছে তো সেখানে কি স্ট্যাটাস কেন হয় না অবশ্যই আছে কিন্তু সেখানে আপনার অপশন আছে জানতে চাচ্ছে কি খেতে চাচ্ছেন না।

ব্যাপারটা কি রকম একটু এক্সপ্লেন কুড়ি আজকে অফিসে আপনার প্রমোশনের না সেটা সে ক্ষেত্রে কি স্যালারি আপনাকে বছরের পর বছর আটকে থাকতে হবে কিন্তু ব্যবসার ক্ষেত্রে বিষয়টা কমপ্লিটলি বিভিন্ন ব্যবসা কিন্তু আপনার রেভিনিউ প্রফিট কোডে কিন্তু এক জায়গায় এক হয়ে থাকবে না আপনি যদি আপনার প্রোডাক্ট ডেভলপ করেন আপনার সার্ভিসকে আরো বেশি উপভোগ করেন মানে বোঝাতে চাচ্ছে সেটা আপনার উপর ডিপেন্ড করছে যে কে আপনার ব্যবসা কত উপরে উঠবে আর এখানে চাকরি করার সবচেয়ে বড় সমস্যা কি একটা জিনিস খেয়াল করেন চাকরির ক্ষেত্রে কিন্তু আপনি সম্ভবত টাকা পাচ্ছেন আপনার নির্দিষ্ট সময়ের কাজ করতে হচ্ছে এবং মাসের শেষে আপনি আপনার টাকাটা বুঝে নিবেন আপনার ইনকাম টা আপনার সময়ের সাথে ডিপেন্ডেন্ট ব্যবসার ক্ষেত্রে কিন্তু এমনটা না আর এখনকার দিনে জিজ্ঞাসা স্কুল স্টার্ট অফ সেখানে এই টাইপের পোস্ট অনেক বেশি দেখতে পারবেন যেমন ধরেন যদি অ্যামাজনের সিইও জেফ বেজোস এর কথাই বলি মার্ক জাকারবার্গ এক ঘন্টায় কত টাকা কামায় এবং তার মনটা কত টাকা কামাতে পারবেন।

যাইহোক আপনার যদি ইনফ্রাস্ট্রাকচার থাকে সেই ক্ষেত্রে আপনার কোম্পানি বাচ্চাটাকে অনেক বেশি স্ক্যালপ করতে পারবেন যেমন ধরেন আপনার রেস্টুরেন্টের বুফে রেস্টুরেন্ট থেকে আপনি ভালো ইনকাম করতে পারবেন যদি সে রেস্টুরেন্টে স্কুল হয় একটা রেস্টুরেন্টের কিন্তু একটা ক্যাপাসিটি আছে দেশে এর বেশি হবে এক জায়গা থেকে ইনকাম করতে পারবেন না কিন্তু ধরেন আপনি আরো বেশি ইনকাম করতে যাচ্ছে তাহলে কিভাবে করবেন লাইক দিবেন এবং ফ্যানপেজ এর মাধ্যমে আপনি আরও বেশ আপনার রেস্টুরেন্টে কে ছড়িয়ে দিতে পারবেন ঠিক যেমনটা করে বাড়বে কিংবা জমা হওয়া ইত্যাদি ইত্যাদি কাঞ্চনা বিক্রি করে আপনি চাইলে গোটা দুনিয়ার কাছে বিক্রি করতে পারবেন রাইটিং এমনটা করে ধরেন এডোবি আইবিএম ওরাক্যাল ইত্যাদি ইত্যাদি ব্যবসার ক্ষেত্রে আপনি ব্যবসাটাকে অনেক বেশি লাভ করতে পারবেন চাপ্তের খেতাম তো পড়তে পারছেন না কারন আপনার হাতে মাত্র 24 ঘন্টায় আছে আপনি চাইলে আরো বেশি সময় দিতে পারেন।

সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন আর আমাদের সাইটের সাথে থাকবেন নতুন নতুন পোস্ট পেতে এবং আপনাদের বন্ধুদের শেয়ার করে দিবেন পোস্টটি ভালো লাগলে । আমার আর অন্যান্য পোস্ট:

ব্যবসায় সফল হওয়ার কয়েকটি উপায়

যে কোন প্রয়োজনে আমার সাথে যোগাযোগ করুন :

facebook contact me

 

ধন্যবাদ সবাইকে

চাকরি না ব্যবসা কোনটা আপনার জন্য ভালো হবে?

আপডেট সময় : 02:00:15 pm, Friday, 3 June 2022

আসসালামু আলাইকুম!

কেমন আছেন সবাই? আশা করি সবাই ভালো আছেন। আমিও আল্লাহর রহমতে ভালই আছি। আজকে আমি আলোচনা করব চাকরি না ব্যবসা কোনটা আপনার জন্য ভালো হবে?
তো বন্ধুরা চলুন শুরু করা যাক :

চাকরি না ব্যবসা কোনটা আপনার জন্য ভালো হবে?

চাকরি না ব্যবসা কোনটা আপনার জন্য ভালো হবে?

শ্রীলংকার জিডিপি হলো একাশে বিলিয়ন ডলার আর জেফ বেজোস এর নেটওয়ার্ক হল 151.1 বিলিয়ন ডলার অর্থাৎ শ্রীলংকার অলমোস্ট 2021 সালে বাংলাদেশের বাজেট ছিল 71 বিলিয়ন ডলার ফর সবচেয়ে ধনী ব্যক্তির তালিকা এক নাম্বারে থাকা বিল গেটসের নেট হচ্ছে 131.50 সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি হলেন মুকেশ আম্বানি এইচএফ ডিলস মুকেশ আম্বানি আর তাছাড়া অপরাধের তালিকায় থাকা টপ হান্ড্রেড মিলিয়ন এর মধ্যে একটা বিশ্বাস তারা প্রত্যেকেই বিজনেসম্যান তবে তাদের মধ্যে একটি বানরের মত মানুষ আছেন যারা চাকরি করে ওর ভিলেনের হয়েছে উনার স্টোরিটা আমরা পরে আলোচনা করব আজকের পোস্ট টিতে চাকরি এবং ব্যবসার মূল এনালাইসিস করব আমি এবং আমার ফ্রেন্ড খাদ্যনালী ব্যবসা করব।

চাকরি না ব্যবসা কোনটা আপনার জন্য ভালো হবে?

ডিবেটের না দরকার পড়ে না তখন মনে হয় যে বিজনেসে করতে হবে টাকা বানাতে হলে বিজনেস করতে হবে কারণ যত টাকা ততবেশি শহীদ ভুল বললা ব্যবসা তো হইতো কিন্তু সুখ নাই সুখ নাই বল সবাইকে 991 থেকে 2000 সাল পর্যন্ত একটা রিচার্জ করা হয় এবং এই রিসার্চে দেখা যায় 149 জন এর মধ্যে 48 পার্সেন্ট মানে অলমোস্ট হাফ পার্সেন্ট ব্যবসায়ীরা মনে করে যে ব্যবসা খুবই স্ট্রেসফুল একটা কাজ এবং 35% সমস্ত মনে করতেছে স্ট্রেসফুল 35% মনে করতেছে এই জিনিসটা মানসিক কষ্ট দায়ক তাদের মেন্টালি অনেক কষ্ট হয় ব্যবসা করতেন না কিন্তু কষ্টের কথা বলতেছি না ব্যবসার অপারেশনসের কষ্টের কথা বলতেছি না নিজের কষ্ট গুলোর কথা আমরা বলতেছি না এরা মনে করতেই 35% মনে করছে যে তাদের মানসিকভাবে কষ্ট হচ্ছে ব্যবসা করতে এখন প্রায় 150 জন মানুষের উপরে স্টিমরোলার একটা রিচার্জ করা হয় যারা চাকরি করে।

চাকরি না ব্যবসা কোনটা আপনার জন্য ভালো হবে?

ওইখানে কিন্তু এটা পুরোপুরি অন্যরকম এখানে মাত্র 2.5 9% আরেকটু বেশি মানুষ মনে করে যে চাকরি তাদের জন্য স্ট্রেসফুল 35 পারসেন্ট ব্যবসায়ী মনে করতেছে যে ব্যবসা করা মানসিকভাবে কষ্ট করার কোন 2.6 পারসেন্ট মানুষ মনে করতেছে চাকরি করা তাদের জন্য মানসিকভাবে কষ্ট কর বিয়ের প্রথম রাতের কিছু সুবিধা এবং অসুবিধা হচ্ছে নিশ্চিত বেতন স্কেল হয়ে থাকেন তাহলে আপনার খাওয়া পরনে কোনো টেনশনই নাই কিন্তু আপনি যদি না হয়ে থাকেন তাহলে বাংলাদেশে আপনার চাকরি পেতে অনেক সমস্যা হবে কারণ আমাদের দেশের এজুকেশন সিস্টেমটা এমনভাবে করা হয়েছে যে ছেলেমেয়েরা সিস্টেম থেকে বের হওয়ার সাথে সাথে চাকরির জন্য যারা প্রস্তুতি নেই বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশনের রিপোর্ট হিসেবে 41 তম বিসিএস এ 2135 আসনের বিপরীতে এক্সাম দিয়েছিল চার লক্ষ 75 হাজার ক্যান্ডিডেট মানে প্রতিটি পোষ্ট এর জন্য 223 জন করে প্রার্থী গ্র্যাজুয়েটরা কি থেকে।

পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট থেকে পাস করে আসাদ এর মধ্যে 75% কলেজ 5 দের মধ্যে 30 শতাংশ এবং ভার্সিটি বাসের মধ্যে 20% এক বছরের বেশি সময় ধরে বেকার থাকে আর আপনি যদি ইউনিভার্সিটি গ্র্যাজুয়েট না হয়ে থাকেন তাহলে আপনার মান্থলি ইনকাম হবে কেবল 11000 টাকা অন এভারেজ আর গ্র্যাজুয়েট হলে তা হবে 29 হাজার 932 টাকা সংসার চলবে না এবং আমি আপনার সাথে একমত সেক্ষেত্রে আপনাকে হাইলি স্কিলড হতে হবে লেবার মার্কেট সার্ভে রিপোর্ট অনুযায়ী আমাদের দেশের টেকনিক্যাল পজিশনে 69 শতাংশ স্কিলড মানুষজন নেই যেসব পজিশন এর বেতন অনেক বেশি তার মানে আপনাকে উচ্চ বেতনে চাকরি পেতে হলে আপনাকে অনেক হাইনি হাই মুষকিল হতে হবে ভালো চাকরি মানে ভালো বেতন আর ভালো বেতন মানি একটা সেফ লাইফ স্টাইল কাছে আপনি কম্ফোর্টেবল এবং সেভ লাইফ স্টাইল চান তারা চাকরির থেকে ভালো কোন কিছু নাই।

নাম্বার 2.লাইফটা লেন্স নয়টা-পাঁচটা কথাটার সাথে আমরা সবাই কমবেশি পরিচিত যেহেতু সরকারি চাকরির স্ট্রাকচার হইল 9 টা থেকে 5:00 এ কারণে 925 এই কনসেপ্টটা মোটামুটি ভাবে আমাদের মধ্যে এন্ড্রয়েড হয়ে গেছে আমরা সবার সাথে পরিচিত যে কর্মঘন্টা সকাল 9 টায় শুরু হবে এবং তারপর বিকাল পাঁচটায় কর্মঘন্টা শেষ হবে আপনি যদি একজন চাকুরীজীবি হয় আপনার পুরা জীবন কিন্তু স্ট্রাকচার এর মধ্যে রাখতে পারেন এবং অনেকেই এটা করে আপনি দেখবেন সকাল 9 টায় সেট চাকরিতে যায় বিকাল পাঁচটায় সে চাকরি থেকে আসে তাঁপুরা জীবনটা সে ওভাবে সাজায় শুক্র-শনিবার সে ছুটি কাটায় কোথাও যাওয়ার প্ল্যান করতে হলে সে ভয়ে প্ল্যান করে রাত আটটা নয়টায় কোন জায়গায় ডিনারের দাওয়াত পেলে যায় তাঁপুরা জীবন খুব সুন্দর করে এই নয়টা-পাঁচটা ছকে বাঁধা হয়ে যায় বেশি বেশি কাজ করেছে আর কোন ঝামেলা নাই তার এক্সট্রা কোন পেশার নেই চাকরির বাইরে সে তার যা ইচ্ছা তা করতে পারতেছে কোথাও কোনো সমস্যা নেই মাথার ওপর চাপ কম মন ভাল থাকে মাথায় পুরা চুল থাকে আদর হ্যান্ড আমরা এই বইয়ের একটা রিপোর্টে দেখছি 30% বিজনেস ওনার সপ্তাহে 50 ঘণ্টার বেশি কাজ করে এবং আরো বিস্তারিত বিশ্লেষণ।

আপনি যদি ব্যাপারটা চিন্তা করেন এবং আমি পুরোপুরি নিজের রিলেট করতে পারি বিষয়টা সাথে যে বিজনেসে সপ্তাহের মোটামুটি 100 ঘন্টা কাজ করি এবং আমি যতক্ষণ জেগে আছি আমি সব সময় আসলে কাজ করতেছি কিছু রেয়ার অকেশন ছাড়া মোটামুটি ভাবে আমার প্রত্যেকটা উইকি না বাড়ি আসলে কাজের পিছনে ব্যয় হচ্ছে এবং আমি যদি এটা কম্পেয়ার করার চেষ্টা করি এমন একজনের সাথে যে চাকরি করে কিভাবে মিলবে না চাকরি করে 35 থেকে 40 ঘণ্টা সপ্তাহে কাজ করে ম্যাক্সিমাম তার মধ্যেও কতটি প্রডাক্টিভ আর কতটুকুই বা এটা নিয়ে ডিবেট হইতে পারে বাট যখন আমরা ব্যবসা করতেছি কোন সিলিং এই জিনিসটার মনে করেন আমি আজকে একটা ব্যবসা দাঁড় করিয়েছি আমি একটা ব্যবসা যখন শুরু করব সেই বিজনেসের ফাইনান্সিয়াল ম্যানেজার আমি সেই বিজনেস অ্যান্ড মার্কেটিং ম্যানেজার আমি সেই বিচার হেড আমি একাউন্টস আমি অপারেশন আমি সবকিছুই কিন্তু আমি জানি একা আমি একা ব্যবসা দাঁড় করাচ্ছি যদি টু কম্পেয়ার করার চেষ্টা করেন যে চাকরি করে তার সাথে যে চাকরি করতেছে তার কিন্তু একটা ছোট্ট সিগমেন্ট নিয়ে চিন্তা করতে হচ্ছে।

আমি যদি কাউকে আমার ইউটিউবে থাম্বেল ডিজাইন করার জন্য হায়ার করি তার কাজ কিন্তু শুধুমাত্র কিভাবে ইউটিউব এর থামনেল বানানো যায় সে যদি আরো ভালো হয় আরো স্কিল রয়েছে হয়তো অন্যান্য ইউটিউবে কিরকম থামনেল দিয়ে কাজ করতেছে বা সে আমার নিজের অ্যানালিটিক্স দেখে ঘাটাঘাটি করে বের করার চেষ্টা করবে যে আগের থামনেল গুলার কনভার্শন রেট কিরকম ছিল কিন্তু রেট কিরকম ছিল ভার্সেস এখনকার গুলো কিরকম ভাবে শেষ ডিটেইলে যাবে তারপরও সেই থামনেল দুনিয়ার মধ্যে থাকবে আমি কিন্তু ওকে কাজ দিয়ে চিন্তা করতেছি আগামী তিন সপ্তাহ পরে যে আমি কি পাবলিশ করব আগে কি করছি ইউটিউবে যাব না কি টিকটকের যাব নাকি ইনস্টাগ্রামেও যাব না কি করলে কি হবে না করলে কি হবে কমেন্টে রিপ্লাই দিব নাকি শুধু ইউটিউব দুনিয়ার মধ্যে আপনি চিন্তা করেন যে আমার কাজের পরিধি কত বড় হচ্ছে প্লাস রেকর্ডেড হাবিজাবি আর তার কাজের পরিধি কতটুক ডিজাইনার যদি এক্সট্রা এফিশিয়েন্সি আনতে চাই অন্য কোন স্কিল শিখতে চায় সে সহজেই করতে পারে কারণ তার ছোট্ট একটা স্কিল নিয়ে কাজ করতে হচ্ছে স্কিলটা খারাপ নাচ কিন্তু অবশ্যই ইম্পর্টেন্ট তার কাজের পরিধি টা ছোট।

9 টা 5 টার বাইরে যে নতুন কিছু একটা শিখতে পারে গিটার বাজানো শিখতে পারে রান্না করা শিখতে পারে কোন সমস্যা নাই আমি কিন্তু জানিনা মনে হতে পারে যে চাকরি করে ব্যবসা-বাণিজ্য ঝামেলার মধ্যে যাব কেন ঝামেলা মধ্যে যাওয়াটা আসলে উপস্থিত নাকি এইখানেই স্ট্যাটাস গেমের একটা বিষয় আছে এবং আসলেই আপনার যে আইডিয়া মনে করে নাম্বারটা নতুন আইডিয়া আইডিয়া নিয়ে আপনি আপনার বস্তার বস্তার বস পর্যন্ত যাইতে পারবেন নাকি স্ট্যাটাস গেম ব্যাপারটা খুব বড় একটা রোল প্লে করে একটা পড়তে হবে দুই পক্ষই হতে পারে না যখন চাকরিতে যোগ দেবেন অনেক সময় দেখা যায় যে আপনাকে অফিস পলিটিক্স ইন বল হতে হয় তার অনেক সময় দেখা যায় কাউকে না কাউকে প্রমোশন নিতে হয় প্রশ্ন করতে পারেন যে ব্যবসায় তো আপনার কম্পিউটারের আছে তো সেখানে কি স্ট্যাটাস কেন হয় না অবশ্যই আছে কিন্তু সেখানে আপনার অপশন আছে জানতে চাচ্ছে কি খেতে চাচ্ছেন না।

ব্যাপারটা কি রকম একটু এক্সপ্লেন কুড়ি আজকে অফিসে আপনার প্রমোশনের না সেটা সে ক্ষেত্রে কি স্যালারি আপনাকে বছরের পর বছর আটকে থাকতে হবে কিন্তু ব্যবসার ক্ষেত্রে বিষয়টা কমপ্লিটলি বিভিন্ন ব্যবসা কিন্তু আপনার রেভিনিউ প্রফিট কোডে কিন্তু এক জায়গায় এক হয়ে থাকবে না আপনি যদি আপনার প্রোডাক্ট ডেভলপ করেন আপনার সার্ভিসকে আরো বেশি উপভোগ করেন মানে বোঝাতে চাচ্ছে সেটা আপনার উপর ডিপেন্ড করছে যে কে আপনার ব্যবসা কত উপরে উঠবে আর এখানে চাকরি করার সবচেয়ে বড় সমস্যা কি একটা জিনিস খেয়াল করেন চাকরির ক্ষেত্রে কিন্তু আপনি সম্ভবত টাকা পাচ্ছেন আপনার নির্দিষ্ট সময়ের কাজ করতে হচ্ছে এবং মাসের শেষে আপনি আপনার টাকাটা বুঝে নিবেন আপনার ইনকাম টা আপনার সময়ের সাথে ডিপেন্ডেন্ট ব্যবসার ক্ষেত্রে কিন্তু এমনটা না আর এখনকার দিনে জিজ্ঞাসা স্কুল স্টার্ট অফ সেখানে এই টাইপের পোস্ট অনেক বেশি দেখতে পারবেন যেমন ধরেন যদি অ্যামাজনের সিইও জেফ বেজোস এর কথাই বলি মার্ক জাকারবার্গ এক ঘন্টায় কত টাকা কামায় এবং তার মনটা কত টাকা কামাতে পারবেন।

যাইহোক আপনার যদি ইনফ্রাস্ট্রাকচার থাকে সেই ক্ষেত্রে আপনার কোম্পানি বাচ্চাটাকে অনেক বেশি স্ক্যালপ করতে পারবেন যেমন ধরেন আপনার রেস্টুরেন্টের বুফে রেস্টুরেন্ট থেকে আপনি ভালো ইনকাম করতে পারবেন যদি সে রেস্টুরেন্টে স্কুল হয় একটা রেস্টুরেন্টের কিন্তু একটা ক্যাপাসিটি আছে দেশে এর বেশি হবে এক জায়গা থেকে ইনকাম করতে পারবেন না কিন্তু ধরেন আপনি আরো বেশি ইনকাম করতে যাচ্ছে তাহলে কিভাবে করবেন লাইক দিবেন এবং ফ্যানপেজ এর মাধ্যমে আপনি আরও বেশ আপনার রেস্টুরেন্টে কে ছড়িয়ে দিতে পারবেন ঠিক যেমনটা করে বাড়বে কিংবা জমা হওয়া ইত্যাদি ইত্যাদি কাঞ্চনা বিক্রি করে আপনি চাইলে গোটা দুনিয়ার কাছে বিক্রি করতে পারবেন রাইটিং এমনটা করে ধরেন এডোবি আইবিএম ওরাক্যাল ইত্যাদি ইত্যাদি ব্যবসার ক্ষেত্রে আপনি ব্যবসাটাকে অনেক বেশি লাভ করতে পারবেন চাপ্তের খেতাম তো পড়তে পারছেন না কারন আপনার হাতে মাত্র 24 ঘন্টায় আছে আপনি চাইলে আরো বেশি সময় দিতে পারেন।

সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন আর আমাদের সাইটের সাথে থাকবেন নতুন নতুন পোস্ট পেতে এবং আপনাদের বন্ধুদের শেয়ার করে দিবেন পোস্টটি ভালো লাগলে । আমার আর অন্যান্য পোস্ট:

ব্যবসায় সফল হওয়ার কয়েকটি উপায়

যে কোন প্রয়োজনে আমার সাথে যোগাযোগ করুন :

facebook contact me

 

ধন্যবাদ সবাইকে